মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবে সর্বোচ্চ রেমিটেন্স সোয়া লাখে

বৈধপথে মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সের অর্থ প্রণোদনাসহ এক লক্ষ পঁচিশ হাজার টাকা পর্যন্ত দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এ বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে সব তফসিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে পাঠানো হয়েছে। অপরদিকে রেমিটেন্সের অর্থ ছাড়া অন্য সব লেনদেনের সীমা আগের মতোই থাকবে বলে জানায় বাংলাদেশ ব্যাংক।

জারি করা প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে , ব্যাংকিং চ্যানেলে আগত রেমিট্যান্সের অর্থ সুবিধাভোগীর মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস (এমএফএস) হিসাবে সরাসরি বিতরণের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট নগদ প্রণোদনার অর্থসহ এক লক্ষ পঁচিশ হাজার টাকা ব্যাংকের মাধ্যমে সরাসরি সুবিধাভোগীর এমএফএস হিসাবে দেওয়া যাবে। রেমিট্যান্সের অর্থ ছাড়া অন্য সব এমএফএস লেনদেনের ক্ষেত্রে এ বিভাগের চলতি বছরের ১৯ মে পেমেন্ট সিস্টেম বিভাগের প্রজ্ঞাপনে নিশ্চিত করতে হবে। ১৯ মে’র ওই প্রজ্ঞাপনে কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, একজন গ্রাহক দিনে পাঁচবার সর্বোচ্চ ত্রিশ হাজার টাকা ক্যাশ-ইন ও পঁচিশ হাজার টাকা ক্যাশ-আউট করতে পারবে।

তবে মাসে ক্যাশ-ইন করা যাবে ২৫ বারে সর্বোচ্চ দুই লাখ ও ক্যাশ-আউট করা যাবে ২০ বারে এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা পর্যন্ত। পাঁচ হাজার টাকা বা তার বেশি ক্যাশ-ইন বা ক্যাশ-আউট করার সময় গ্রাহককে জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) ফটোকপি জমা দিতে হবে।

এ বিষয়ে বিকাশের হেড অব করপোরেট কমিউনিকেশন্স শামসুদ্দিন হায়দার ডালিম বলেন, বৈধপথে মানি ট্রান্সফার হাউস ও ব্যাংকিং চ্যানেল হয়ে এসএফএসের ম্যাধমে দেশে রেমিট্যান্স পাঠানোর সুবিধা অল্প সময়েই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। সরকার ঘোষিত দুই শতাংশ প্রণোদনা প্রবাসীদের বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠাতে আরও আগ্রহী করে তোলে।

তবে একবারে সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা পাঠানোর সীমা নির্ধারিত থাকায় অনেকেই আয়ের বাকি অর্থ অনানুষ্ঠিক পথে পাঠানোর চেষ্টা করতেন। সেই প্রেক্ষাপটে মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বিকাশ এর আবেদন প্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সার্বিক বিষয়ে বিবেচনায় রেমিট্যান্স পাঠানোর সীমা ২৫ হাজার থেকে বাড়িয়ে প্রণোদনসহ ১ লাখ ২৫ হাজার টাকা নির্ধারন করেছে।

শামসুদ্দিন হায়দার ডালিম বলেন, আমরা এই সময়োপযোগী সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই। এই উদ্যোগ নি:সন্দেহে প্রবাসীদের বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠাতে আরও বেশি উৎসাহিত করবে।

Sources: probashbarta dot com

  • Share on Tumblr

Leave a Reply